Home » খেলাধূলা » সাকিবের বিরুদ্ধে অজি গণমাধ্যমের অভিযোগ

সাকিবের বিরুদ্ধে অজি গণমাধ্যমের অভিযোগ

সাকিব আল হাসানের বিপক্ষে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ করেছে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন গণমাধ্যম। ফক্স স্পোর্টস, টেলিগ্রাফসহ আরও বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম সাকিবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে আইসিসির দৃষ্টি আকর্ষণও করেছে। এমনকি বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের আচরণ নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে অজিদের গণমাধ্যমগুলো।

বুধবার চট্টগ্রাম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংসের ৮১তম ওভারে নতুন বল পায় বাংলাদেশ। নতুন বল শক্ত ও মসৃন থাকায়  টার্নের জন্য বলটা মাটিতে ঘষে নেন সাকিব। ভিডিওতে দেখা যায়, আম্পায়ার নাইজেল লংয়ের ঠিক পেছনেই এমনটি করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

তবে ওই ভিডিওটি এডিটিং করে সাকিবের ক্যারিয়ারে কালিমা লেপনের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করে ফেসবুকে বিভিন্ন যুক্তি-প্রমাণ উপস্থাপন করছেন ভার্চুয়াল জগতের অনেকেই।

বল টেম্পারিং আইনে বলা আছে, কোনো অবস্থাতেই বলের স্বাভাবিক অবস্থা বিকৃত করা যাবে না। ক্রিকেট আইনের ৪২ নম্বর অনুচ্ছেদের ৩ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, বল মাটিতে ঘষা, কিংবা বলের উজ্জ্বলতা নষ্ট করলে সেটা টেম্পারিংয়ের আওতাভুক্ত হবে।
বল টেম্পারিংয়ের সংজ্ঞায় বলা হয়েছে, ‘বলের স্বাভাবিকতা বজায় রাখতে কৃত্রিম কিছু যেমন থুতু বা ঘাম ব্যবহার করা যাবে।  বলে কাদা লাগলে বা ভিজে গেলে সেটা শুকনো কাপড় দিয়ে মোছা যাবে। এর বাইরে কোনো কিছু করাই হবে বল টেম্পারিং। নখ দিয়ে খোঁচা দেওয়া বা আচড় দেওয়া, বলে কামড় দেওয়া, পায়ের বুটের সুচালো অংশ দিয়ে আঘাত করা, প্যান্টের জিপারের সাহায্যে বলে দাগ কাটনোর চেষ্টা, ভ্যাসলিন,  ক্রিম, কৃত্রিম লালা ব্যবহার করা যাবে না। এমনটা হলে সেটা বল টেম্পারিং বলে গণ্য হবে। মাটিতে সাকিবের বল ঘষার বিষয়টি অবশ্য আম্পারের নজর এড়িয়ে যায়।

অভিযোগ প্রমাণিত হলে কড়া শাস্তির মুখে পড়তে পারেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। হতে পারে জরিমানা, নিষিদ্ধ হতে পারেন ম্যাচও। অবশ্য এ বিষয়ে ম্যাচ রেফারি ও আইসিসি আনুষ্ঠানিকভাবে কোনোকিছুই জানায়নি।